1. aleyaa31a16@gmail.com : Aleyaa 31 : Aleyaa 31
  2. sajedurrahmanshohan@gmail.com : Sajedur Shohan : Sajedur Shohan
  3. sejanahmed017@gmail.com : Sijan Sarkar : Sijan Sarkar
  4. sohan75632@gmail.com : Sohanur Rahman : Sohanur Rahman
  5. multicare.net@gmail.com : নর্থ এক্সপ্রেস :
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১১:১৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :

ভোরের কুয়াশা জানান দিচ্ছে শীতের আগমন

জিয়াউদ্দিন লিটন
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৫৫ বার পড়া হয়েছে

 

উত্তরের জেলা বগুড়া। আর বগুড়ার প্রবেশদ্বার শেরপুর উপজেলা। ভোরের ঘন কুয়াশায় শীতের আগমন বার্তা।

আগের আমলে প্রচলিত ছিল “আশ্বিনে গা করে শিন শিন।” এবার আশ্বিনে গা শিন শিন না করলেও কার্তিকের শুরুতেই শীতের আমেজ লক্ষণীয়। এখন ভরা কার্তিক মাস। পৌষ আসতে এখনো বেশ বাকি। কিন্তু প্রকৃতি এখনই শীতের পরশ বুলিয়ে যাচ্ছে। সন্ধ্যার পর থেকে সকাল পর্যন্ত অনুভূত হতে শুরু করেছে শীতের পরশ। ভোর থেকেই দেখা মিলছে ঘন কুয়াশার। প্রকৃতি সাজতে শুরু করছে নতুন সাজে। ধানের পাতায়, ঘাসের ডগায় জমতে শুরু করেছে শিশির বিন্দু। সূর্যের আলোতে মুক্তোর দানার মত চকচক করে সৃষ্টি করে এক অপরুপ সৌন্দর্য। তেজহীন রোদ আর সবুজ ঘাসের ওপর জমে থাকা শিশির বিন্দুর শীতল স্পর্শ জানিয়ে দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। ধানের সোনালী শীষ মাথা নুইয়ে দাঁড়িয়ে আছে দিগন্ত জুড়ে। তাতে শিশির বিন্দু ছড়িয়ে দিচ্ছে মৃদু শীতলতা। মসজিদ মক্তবে পড়ুয়া শিশুদের কুয়াশা ভেদ করে হেঁটে যাওয়ার এক অপরূপ দৃশ্য। মহা সড়কে ইজিবাইক, বাস, ট্রাক, মোটরসাইকেল সহ সব ধরনের যানবাহন হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে ধীরগতিতে। ভোরের ঘন কুয়াশার স্নিগ্ধতায় বিরাজ করছে অন্যরকম এক প্রাকৃতিক পরিবেশ। উচ্ছ্বসিত হচ্ছেন প্রাতভ্রমণকারীগন, কর্মক্ষেত্রে গমনকারী আর মক্তবের উদ্দেশ্যে গমনকারী ছোট শিশু কিশোররা।

প্রকৃতির এই রূপ অনেকের কাছেই প্রিয় হওয়ায় হেমন্ত অনেক বাঙালির কাছে প্রিয় ঋতু। এখন থেকে যতই দিন গড়াবে পৌষের দিকে, ততই সাইবেরিয়ান বায়ুপ্রবাহ বাড়বে এ দেশ অভিমুখে। হিমালয় সংলগ্ন এলাকা হিসেবে উত্তরাঞ্চলে শীতের তীব্রতা ইতিমধ্যেই বাড়তে শুরু করেছে। ধীরে ধীরে জেঁকে বসবে শীত। পাশাপাশি বাড়ছে কুয়াশা। রাত পেরিয়ে যখন ভোরের আগমন ঘটে তখন গাঢ় কুয়াশার দেখা মেলে কোথাও। তার মধ্যেই উঁকি দেয় নবীন সূর্য। শীতের এই অনুভূতি উপভোগ করতে ইতোমধ্যে রূপসী বাংলার ঘরে ঘরে তুলে রাখা পাতলা কাঁথা আর চাদর কম্বল স্থান পেতে শুরু করেছে খাট চৌকিতে।

এ সময়ের ঘন কুয়াশা এ বছর শীতের তীব্রতা বৃদ্ধির জানান দেয়। এখন রাতে ফ্যান চালানো হয় না। উপরন্ত শেষ রাতে শরীরে কাঁথা, চাদর জড়াতে হচ্ছে। প্রাতঃ ভ্রমণকারী এক পৌর বললেন, এ সময়ের এমন কুয়াশা অনেকদিন হয় দেখিনি। তবে হাঁটতে খুব ভালো লাগছে। আজকের দিনের এমন কুয়াশায় বলে দেয় শীত আসছে। অপরদিকে শীতের আগাম সবজি চাষীরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন সবজি চাষাবাদে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© নর্থ এক্সপ্রেস নিউজ কর্তৃক সকল স্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট